রাসুলের বিরুদ্ধে আবু তালেবের কাছে অভিযোগ

আকিল ইবনে আবু তালেব (রঃ) বলেন, কোরায়েশ নেতাগণ আমার পিতা আবু তালেবের নিকট এসে বললেন, হে আবু তালেব! তোমার ভাতিজা আমাদের ময়দানে এবং মজলিসে গিয়ে এমন সব কথা বলে, যা শুনে আমরা ভীষণ বিরক্ত বোধ করি এবং মানসিক যন্ত্রণা  অনুভব করি।  

যদি তুমি পার তবে তাকে আমাদের বিরক্ত করা হতে বিরত রাখ।  এ কথা বলার পর চাচা আবু তালেব আমাকে বললেন, আকীল, যাও তোমার চাচাতো ভাইকে ডেকে আন।  আমি নবী করীম (সঃ) কে একটি ছোট কামরা হতে ডেকে আনলাম।  আবু তালেব বললেন,

হে ভাতিজা! আল্লাহর কসম তুমি তো জান আমি তোমাকে কতটা ভালোবাসি। তোমার স্বজাতীয় লোকেরা আমার নিকট এসে অভিযোগ করছে যে, তুমি কাবা ঘরে এবং অন্যান্য জায়গায় গিয়ে এমন সব কথা বল যা শুনে তাদের খুব কষ্ট হয়।  যদি সম্ভব হয় তবে তুমি তাদের নিকট যাওয়া হইতে বিরত থাক।  তাদের নিকট এমন কথা বলোনা যা শুনে তাদের কষ্ট হয়।  

নবী করীম (সঃ) চাচার মুখে এই কথা শুনে আসমানের দিকে মুখ তুলে বললেন।  আল্লাহ পাকের কসম, যেই কাজের জন্য আমি প্রেরিত হয়েছি, তা পরিত্যাগ করা আমার পক্ষে সম্ভব না।  সূর্য হতে আগুনের পি- নিয়ে আসতে পারে, এটা সম্ভব, কিন্তু আমি যেই দাওয়াতের কাজ করতেছি তা পরিত্যাগ করা সম্ভব না।  

আবু তালেব তখন সমাবেত লোকেদের বললেন, আল্লাহ পাকের কসম! আমার ভাতিজা কখনো মিথ্যা কথা বলে নাই।  কাজেই তোমরা ভালোয় ভালোয় ফিরে যাও।

বায়হাকীতে এই ঘটনার বিবরণে উল্লেখ রয়েছে যে, আবু তালেব নবী করীম (সঃ)-কে বললেন, হে আমার ভাতিজা! তোমার কওম আমার নিকট এসে এইরূপ বলেছেন।  কাজেই তুমি নিজের উপর এবং আমার উপর দয়া কর। আমার উপর এমন বোঝা চাপাইও না যা বহন করা আমার পক্ষে সম্ভব না, তোমার পক্ষেও সম্ভব হবে না।

কাজেই তোমার স্বজাতীয় লোকেদের নিকট যেই সকল কথা খারাপ লাগে সেই সব কথা তাদের নিকট বলো না। নবী করিম (সঃ) ধারণা করলেন, তার ব্যাপারে চাচার মনোভাবে পরিবর্তন এসেছে এবং তিনি অপমানিত হবেন। চাচা তাকে সাহায্য করবেন না এবং তাকে স্বজাতীয় লোকেদের হাতে তুলে দিবেন।

এইরূপ ধারণা করে নবী করিম (সঃ)-বললেন, চাচাজান, যদি আমার ডান হাতে সূর্য এবং বাম হাতে চাঁদ এনে দেন, তবু আমি এই কাজ হতে বিরত হব না, যতোদিন পর্যন্ত আল্লাহ পাক আমাকে বিজয়ী না করে অথবা দ্বীনের দাওয়াত দিতে দিতে আমি নিঃশেষ না হয়ে যাব।

নবী করীম (সঃ) এই কথা বলে আবেগে কেঁদে ফেললেন, অতঃপর তিনি চলে যেতে লাগলেন। আবু তালেব বললেন, যাও ভাতিজা, তুমি নিজের কাজ চালিয়ে যাও। তুমি যা ভালো মনে কর তাই কর। আল্লাহর কসম, আমি তোমাকে কখনো পরিত্যাগ করব না।

অনুপ্রেরণার বাণী

মুখের ব্রণ দূর করার সহজ উপায়

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

Spread the love

Leave a Comment