বয়ান কাকে বলে ও কত প্রকার

বয়ান কাকে বলে ও কত প্রকার: তাবলীগী বয়ান করা সম্পর্কে কয়েকটি উপদেশ। ১. কুরআন, হাদীস, হায়াতে সাহাবা ও বুযুর্গদের জীবনী থেকে     বয়ান  করার চেষ্টা করা। ২. ভাষার মধ্যে ন¤্রতা, ভদ্রতা কমলতা, সাবলিলতা, ভালবাসা, আবেগ ও ব্যথার মিশ্রণ থাকা। ৩. রাজনৈতিক  কোন কথা না বলা। ৪. কাহারো উপরআক্রমনামূলক কোন কথা না বলা। ৫. ইংরেজী … বিস্তারিত

উমুমী গাশ্ত কাকে বলে? দাওয়াত ও তাবলীগ কি?

দাওয়াত অর্থ আহবান করা তাবলীগ অর্থ প্রচার। দাওয়াত ও তাবলীগ অর্থ আহ্বান করা ও প্রচার করা। তাবলীগের কাজের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ হলো উমুমী গাশ্ত এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা উল্লেখ করা হলো। উমুমী গাশ্ত কাকে বলে: পরামর্শ করে উমূমী গাশ্তের দিন ও সময় নির্দিষ্ট করা। যে সময় মহল্লায় লোক জন বেশী পাওয়া যায় এমন সময় কোন … বিস্তারিত

তালিম কাকে বলে? কিভাবে তালীম দিতে হয়

তা‘লীমঃ তা‘লীম মসজিদে নববীর বিশেষ একটি আমল।  সকাল-বিকাল মিলে মোট চার ঘন্টা তা‘লীম হবে, তা‘লীমের অংশ তিনটি ১. কিতাবী তা‘লীম, ২. সূরা-কেরাত সহীহ্ করার মশ্ক,৩. ছয় নাম্বার মুযাকারা। তা‘লীমের উদ্দেশ্যঃ- ফাযায়েলে আমলের বর্ণনা দ¦ারা দিলে আমলের এক্বীন পয়দা করা, অর্থ্যাৎ আল্লাহ তা‘য়ালা যে আমলের সহিত যে ওয়াদা করেছেন তা অবশ্যই দিবেন একথার এক্বীন করা, বা … বিস্তারিত

পরামর্শ করার গুরুত্ব ও নিয়ম – মাশওয়ারা কি?

পরামর্শ করার গুরুত্ব ও নিয়ম: মাশওয়ারা বা পরামর্শের গুরুত্ব স্বয়ং আল্লাহ তা’আলা কুরআনুল কারীমে উল্লেখ করেছেন যেমন মানুষ সৃষ্টির পূর্বে আল্লাহ তায়ালা ফেরেশতাদের সাথে পরামর্শ বা মাসোয়ারা করেছিলেন তাবলীগের ভাষায় মাশওয়ারা কাকে বলে এবং কিভাবে করতে হয় এর গুরুত্ব সম্পর্কে উল্লেখ করা হলো। মাশওয়ারার গুরুত্বঃ আল্লাহ তায়ালা এরশাদ করেন,  فبما رحمة من الله لنت لهم … বিস্তারিত

মনজিল করার নিয়ম | আল্লাহর পথে দাওয়াত

মনজিল করার নিয়ম: যে মসজিদে আমাদের রোখ থাকবে সে মসজিদের মহল্লার শুরুতে মন্জিল করবে মসজিদের সামনে গিয়ে নয়। মন্জিল করার নিয়ম হলো, মসজিদের মহল্লার শুরুতে রাস্তার এক পাশে খালি যায়গায় সব সামানা রেখে তার চতুর পাশে সকল সাথী গোল হয়ে দাঁড়াবে। অতপর মন্জিলের দোয়া পড়বে, দোয়া এই,    رب انزلنى منزلا مباركا و انت خير المنزلين-  … বিস্তারিত

সফরের নিয়ম ও আদব আল্লাহর পথে দাওয়াত

সফরঃ- রওয়ানেগী হেদায়েত (যা সফরে যাওয়ার পূর্বে বলা হয়) শুনে মুছাফাহা করার পর যখন রোখের পার্চা বা কাগজ হাতে আসবে তখন থেকে সফরের কার্যক্রম শুরু হবে, সর্ব প্রথম সফরে বের হওয়ার নিয়ত ঠিক করা। আর নিয়ত হলোঃ-  ১. আল্লাহকে রাযী-খুশী করা, ২. দ্বীন শিখা, ৩. দ্বীনের উপর চলতে শিখা, ৪. দ্বীনের মেহনত শিখা, ৫. নগদ … বিস্তারিত

নবী করীম (সঃ) যেভাবে ইসলামের দাওয়াত দিতেন

নবী করীম (সঃ) যেভাবে ইসলামের দাওয়াত দিতেন হজরত আবু বকর সিদ্দীক (রাঃ) কে ইসলামের দাওয়াত প্রদান হজরত মা আয়েশা সিদ্দীকা (রাঃ) বলেন, হজরত আবু বকর সিদ্দীক (রাঃ) নবী করীম (সাঃ) এর সহিত সাক্ষাৎ করার উদ্দেশ্য গৃহ হইতে বাহির হইলেন। আইয়ামে জাহেলিয়াতের সময় হইতেই তাঁহারা উভয়ে অন্তরঙ্গ বদ্ধু ছিলেন। নবীজীর সাথে দেখা হওয়ার পর হজরত আবু … বিস্তারিত