থার্টিফাস্ট নাইট ও পহেলা বৈশাখ কি শরীয়াহ সম্মত?

প্রতি বছর ১ জানুয়ারীর শুরুতে থার্টিফাস্ট নাইট পালন এবং ১ বৈশাখে উৎসব উদযাপনে আমাদের দেশে যে ধারা প্রবাহিত আছে তার সাথে ইসলামী সভ্যতার কোন সম্পর্ক নেই। থার্টি ফাস্টনাইট এটা একটি পাশ্চাত্য খৃষ্টানী সংস্কৃতি বা অশুভ সভ্যতা যা মুসলিম তরুণ-তরুণীকে ধবংসাক্ত বেড়াজালে গ্রেফতার করেছে। থার্টি ফাস্ট লাইটে তরুণ-তরুণীর বেপর্দা উল্লাস, মাখা-মাখি উদ্যম নৃত্য, প্রচন্ড পটকাবাজীসহ ক্লাব, বার, পথ ঘাটে যে বেহায়াপনা ও মাতলামী চলে তা কেবল পাশ্চাত্যকেই স্বরণ করে দেয়।

তেমনি ভাবে ১ বৈশাখে নব-বর্ষ বরণের নামে মঙ্গল প্রদ্বীপ জালিয়ে মিছিল বের করে সম্পূর্ণ হিন্দুয়ানী সংস্কৃতির মহড়া চালানো হয়। মিছিলটি হিন্দুদের ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী মনষা দেবীর বাহন সাপ, লক্ষ্মী দেবীর বাহন পেঁচা, কার্তিক দেবীর বাহন ময়ুর এবং অন্যান্য দেবীর বাহন বা প্রতিক হনুমান, কবুতরসহ বিভিন্ন জীব-জন্তুর মুর্তি বহন করা হয় এসবই মুসলমানদের জন্য বর্জনীয়। ১ বৈশাখের কর্মকান্ড মুসলিম সংখ্যা গরিষ্ঠ বাঙালিদের কোন সংস্কৃতি নয়। এসব হিন্দুয়ানী সংস্কৃতি বা অনুষ্ঠান ভারতে মানায়। কিন্তু বাংলাদেশে এসব আমদানী ইসলাম বিদ্বেষী   কোন ষড়যন্ত্র কিনা তা ভেবে দেখা প্রয়োজন।

অতএব, থার্টি ফাস্ট নাইট ও ১ লা বৈশাখের কর্মকান্ড প্রায়ই এক ও অভিন্ন সেহেতু মুসলমানদেরকে বি-জাতীয় সংস্কৃতি থেকে বিরত থেকে নিজের মূল্যবান হায়াত তথা জীবনটাকে রক্ষা করে ইসলামী সভ্যতায় জীবন গড়া একান্তই প্রয়োজন। আল্লাহ্ আমাদের তৌফিক দান করুন।

ইসলামী শরিয়াহ মতে দিবস

text.islamimedia