স্ত্রীর প্রতি স্বামীর দায়িত্ব

স্ত্রীর প্রতি স্বামীর দায়িত্ব
আল্লাহর বিধান অনুযায়ী বিবাহের মাধ্যমে একজন পুরুষ একজন মহিলাকে তার আধীনে পায়। ইসলামী শরীয়ত অনুযায়ী স্ত্রীর প্রতি স্বামীর দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে এবং স্বামীর প্রতি স্ত্রীর কর্তব্য রয়েছে। যদি একটি সংসার আল্লাহতালা ও রাসুলুল্লাহ (স.) এর বিধান অনুযায়ী চলে, তাহলে সংসারে শান্তি ফিরে আসবে।

স্বামীর দায়ীত্ব:

হালাল উপায়ে জীবিকা নির্বাহ করা: ব্যবসা-বাণিজ্য, ক্ষেতের কাজ, হাট-বাজারের কাজ এককথায় অর্থের জোগান দেওয়া একজন স্বামীর দায়িত্ব। স্ত্রীর ইজ্জত সম্ভ্রম রক্ষা করা ও তার হক্ব আদায় করা স্বামীর কর্তব্য।

স্ত্রীর দায়ীত্ব:

ঘরের কাজ, রান্নার কাজ, সন্তান পালনের কাজ, কাপর কাচার কাজ পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ স্ত্রীর দায়ীত্ব। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ ‘তোমরা প্রত্যেকেই দায়িত্বশীল এবং তোমরা তোমাদের দায়িত্ব সম্পর্কে জিজ্ঞাসিত হবে’।

একটি সংসার তখনই সুখের হয়, যখন স্বামী স্ত্রী একে অন্যের প্রতি দায়িত্বশীল এবং ভালবাসা মহব্বত থাকে। স্মরণীয় হল একে অন্যের প্রতি ছার দেওয়ার মনমানসিকতা থাকতে হবে।

ছোট ছোট ভুলের কারণে ঝগড়া-বিবাদ করা যাবে না। যেমন স্বামী কাজ থেকে ফিরে এসে দেখল যে তার স্ত্রী রান্নার কাজ শেষ করেনি, একারণে তাকে মারধর করল এমন করা যাবেনা বরং তাকে ধৈর্য ধারণ করতে হবে, এবং তাকে বোঝাতে হবে।

এবং স্ত্রীর কর্তব্য হলো স্বামীর অবস্থা বুঝে তার কাছে কোন বিষয়ের আবদার জানানো এমন অবস্থায় আছে যে সে রাগান্বিত এমত অবস্থায় তাঁর এমন কোন কথা বলা যাবে না যে আরো বেশি রেগে যাবে। “স্থান-কাল-পাত্রভেদ” অবস্থা বুঝে কথা বলা উচিত। যদি স্বামীর মনের অবস্থা ভাল না থাকে অবশ্যই সে ক্ষেত্রে স্ত্রীর ধৈর্যশীল হওয়া উচিত। এবং তার মনের চাহিদা যখন তার মন হাস্যজ্জল থাকবে তখন তার নিকট জানাবে।

মোটকথা: ইসলামী বিধি-বিধান মেনে চললে একটা সংসারে অবশ্যই সুখ-শান্তি আসবে ইনশাল্লাহ

আল্লাহ আমাদের সবার দাম্পত্য জীবনকে সুখময় করে দিন। আমিন

অনুপ্রেরণার বাণী

মুখের ব্রণ দূর করার সহজ উপায়

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

Spread the love

Leave a Comment