যে সকল কাজ আজানে মাকরুহ

(১) গানের সুরে আজান দেওয়া।
(২) ওযু বিহীন ব্যক্তির আজান ও ইকামত।
(৩) জুনুবীর আযান দেওয়া (অর্থাৎ নাপাক অবস্থায় আযান দেওয়া) (৪) অবুঝ শিশুর আযান দেওয়া।
(৫) পাগলের আযান দেওয়া।
(৬) নেশাগ্রস্ত ব্যক্তির আযান দেওয়া।
(৭) মহিলার আযান দেওয়া।
(৮) ফাসেকের আযান দেওয়া।
(৯) বসে আযান দেওয়া।
(১০) মুয়াজ্জিনের জন্য আযান এবং ইকামতের মাঝে কথা বলা মাকরুহ। যদি যদি মুয়াজ্জিন আজানের মাঝে কথা বলে তাহলে তার জন্য পুনরায় আযান দেওয়া মুস্তাহাব।
আর যদি ইকামাতের মাঝে কথা বলে তাহলে পুনরায় ইকামত দিবে না।
(১১) শহরের মধ্যে জুমার দিনের যোহরের জন্য আযান ও ইকামত দেওয়া।

যে ব্যক্তির একাধিক নামাজ ছুটে গেছে সে প্রথম ছুটে যাওয়া নামাজের জন্য আযান ও ইকামত দিবে। অতঃপর অবশিষ্ট নামাজের ব্যাপারে তার অধিকার থাকবে, ইচ্ছা করলে প্রত্যেক ছুটে যাওয়া নামাজের জন্য আযান ও ইকামত দিবে। আর ইচ্ছা করলে শুধু ইকামতের উপর সংক্ষিপ্ত করবে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

শেয়ার করুন