নজর ও বাতাস লাগা সম্বন্ধে আকীদা

নজর বাতাস লাগা সম্বন্ধে আকীদা

হাদীছের বর্ণনা অনুযায়ী নযর লাগার বিষয়টি সত্য । জান-মাল ইত্যাদির প্রতি বদনজর লেগে তার ক্ষতি সাধিত হতে পারে। আপনজনের প্রতিও আপনজনের বদনজর লাগতে পারে, এমনকি সন্তানের প্রতিও মাতা-পিতার রদনযর লাগতে পারে। নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,

অর্থাৎ নজর লাগা সত্য। (মুসলিম)

আর বাতাস লাগার অর্থ ‍য়দি হয় জিন ভূতের বাতাস অর্থাৎ ,তাদের খারাপ নযর বা খারাপ আছর লাগা, তাহলে এটাও সত্য; কেননা জিন ভূত মানুষের উপর আছর করতে সক্ষম।

কেউ কারও কোন ভাল কিছু দেখলে যদি (মাশা আল্লাহ) বলে, তাহলে তার প্রতি তার বদনজর লাগে না । আর কারও উপর কারও বদনজর নীচের জায়গা ধুয়ে সেই পানি যার উপর নজর লেগেছে তার উপর ঢেলে দিলে খোদা চাহেতো ভাল হয়ে যাবে।

অর্থাৎ ,ইবনে আব্বাস (রাঃ) নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণনা করেন যে, নজর লাগা সত্য। যদি কোন কিছু ভাগ্য অতিক্রম করতে পারত ,তাহলে নযর তাকে অতিক্রম করত। যখন তোমাদের কাউকে ধুয়ে দিতে বলা হয় ,সে যেন ধুয়ে দেয়। (মুসলিম ও তিরমিযী)

বদনযর থেকে হেফাজতের জন্য কাল সুতা বাঁধা বা কালি কিংবা কাজলের টিপ লাগানো ভিত্তিহীন ও কুসংস্কার।

দীর্ঘ সময় সহবাস করার উপায় ও কৌশল

মুখে বলে সহজে লিখুন

আমাদের ইউটিউব ইউটিব চ্যানেল

নজর ও বাতাস লাগা সম্বন্ধে আকীদা

Leave a Comment